video video video



রোনাল্ডো থেকে মেসি, করোনার ধাক্কা সর্বত্র!


SPORTSONLY.NET :
18.03.2020

করোনাভাইরাস অতিমারির জেরে ইউরো ২০২০ এক বছর পিছিয়ে গেল। এই খবর প্রথমে জানিয়েছিল নরওয়ে ফুটবল সংস্থা, তাদের সরকারি ওয়েবসাইটের মাধ্যমে টুইটারে। পরে এই খবরের সত্যতা প্রতিষ্ঠিত হয় উয়েফার সরকারি ঘোষণায়। নতুন সূচি অনুযায়ী ইউরোপীয় দেশগুলির মধ্যে সব চেয়ে বড় এই ফুটবল টুর্নামেন্ট হবে ২০২১-এর ১১ জুন থেকে ১১ জুলাই।

মঙ্গলবারই উয়েফা তার সদস্য দেশগুলির সঙ্গে ভিডিয়ো কনফারেন্সে করে। ইউরোপীয় ফুটবলের নিয়ামক সংস্থা অবশ্য ঠিক সভার পরেই সরকারি ভাবে সেই সিদ্ধান্ত ঘোষণা করেনি। অপেক্ষাটা ছিল উয়েফার কার্যকরী সমিতির সভায় বিষয়টির চূড়ান্ত অনুমোদনের। এবং তা অনুমোদিত হতেই উয়েফা প্রেসিডেন্ট আলেকজান্ডার সেফারিন সরকারি ভাবে টুর্নামেন্ট এক বছর পিছিয়ে দেওয়ার কথা ঘোষণা করেন। খবর আনন্দবাজারের।

অতিমারির জেরে ইউরোপের প্রায় সব দেশেই ঘরোয়া লিগ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। বাতিল হয়েছে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ও ইউরোপা লিগের সব ম্যাচও। এই দু’টি টুর্নামেন্টেই শেষ ষোলো পর্যায়ের খেলা চলছিল। এখন ইউরো এক বছর পিছিয়ে যাওয়ায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এলে সব দেশই তাদের ঘরোয়া লিগ শেষ করার সুযোগ পাবে। সেই সঙ্গে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ও ইউরোপা লিগ শেষ হওয়ারও একটা ক্ষীণ সম্ভাবনা সৃষ্টি হবে।

ইউরোর ইতিহাসে এই প্রথম টুর্নামেন্ট এক বছর পিছিয়ে গেল। তাই এই টুর্নামেন্টকে ইউরো ২০২০ আর বলা যাচ্ছে না। এখন বলতে হবে, ইউরো ২০২১। অবশ্য ২৪ দেশকে নিয়ে ইউরোপের এই ফুটবল টুর্নামেন্টই শুধু নয়, ১ লক্ষ ৮০ হাজার সংক্রমিত মানুষের কথা মাথায় রেখে আরও অনেক টুর্নামেন্টই বাতিল বা স্থগিত করা হয়েছে।

মঙ্গলবারই ইউরোর মতোই এক বছর পিছিয়ে গেল কোপা আমেরিকাও। যে ঘোষণা করেছে লাতিন আমেরিকান ফুটবল কনফেডারেশন (কনমেবল)। এই বছরের ১২ জুন থেকে ১২ জুলাই লিয়োনেল মেসি, নেমার দা সিলভা স্যান্টোস জুনিয়রদের নিয়ে এই টুর্নামেন্ট হওয়ার কথা ছিল। নতুন ঘোষণা অনুযায়ী টুর্নামেন্ট হতে পারে পরের বছর (২০২১) ঠিক একই সময়ে।



Copyright © 2019 sportsonly.net