video video video
  • হোম » ক্রিকেট » মুখ খুললেন পাকিস্তানের দর্শকদের ‘জানোয়ার’ বলে ভর্ৎসনা করা হার্শেল গিবস



মুখ খুললেন পাকিস্তানের দর্শকদের ‘জানোয়ার’ বলে ভর্ৎসনা করা হার্শেল গিবস


SPORTSONLY.NET :
23.01.2020

দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক ক্রিকেটার হার্শেল গিবস ২০০৭ সালে ‘জানোয়ার’ বলে ভর্ৎসনা করেছিলেন পাকিস্তানের দর্শকদের। পাকিস্তানের বিরুদ্ধে টেস্ট থেলতে নেমে বৈষম্যমূলক এই মন্তব্য করে দুই ম্যাচের জন্য নির্বাসিত (Recalls 2007 Ban) হয়েছিলেন সেসময়।

এসব বিষয়ে এতদিন পর মুখ খুললেন এই ক্রিকেটার। সেবার সিরিজের প্রথম ম্যাচে সেঞ্চুরিয়নে পাকিস্তানের সমর্থকদের একাংশের বিরুদ্ধে বৈষম্যমূলক মন্তব্য করার অভিযোগে তাঁকে দু’ম্যাচ নির্বাসিত করেছিল আইসিসি।

এসময় স্টাম্প মাইক্রোফোনে শোনা গিয়েছিল, তিনি ‘জানোয়ার’ বলে ভর্ৎসনা করছেন পাকিস্তানের দর্শকদের।

টুইটারে তাঁর এক ফলোয়ারকে একটি প্রশ্নের উত্তরে এই প্রোটিয়া তারকা জানান, ‘কয়েকজন রাউডি পাকিস্তানি সমর্থককে আমি ‘জানোয়ার’ বলেছিলাম। ওরা আমার স্ত্রী-পুত্রকে খেলোয়াড়দের সামনের এলাকার আসন থেকে উঠে যেতে জোর করেছিল।’

গিবস ৯০টি টেস্ট ও ২৪৮টি একদিনের আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলে যথাক্রমে ৬,১৬৭ ও ৮,০৯৪ রান করেছেন। পাশাপাশি ২৩টি টি২০ খেলে ৪০০ রান করেছেন।

কেপটাউনের গ্রীন পয়েন্টে জন্মগ্রহণকরেন দক্ষিণ আফ্রিকার অবসরপ্রাপ্ত এই ক্রিকেটার। দক্ষিণ আফ্রিকা জাতীয় ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য হার্শেল গিবস মূলতঃ তার ব্যাটিংয়ের জন্যেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট অঙ্গনে পরিচিত ব্যক্তিত্ব।

রন্ডেবস এলাকার সেন্ট জোসেফ’স মারিয়েস্ট কলেজ ও পরবর্তীকালে ডাইওসেসান কলেজে অধ্যয়ন করেন। সহজাত ক্রীড়া প্রতিভার অধিকারী গিবস বিদ্যালয়ে অধ্যয়নকালীনই বিদ্যালয় দলের পক্ষে রাগবি, ক্রিকেট ও ফুটবলে অংশগ্রহণ করতেন

স্ট্যাম্পে বল ছুঁড়ে ব্যাটসম্যানকে আউট করার ক্ষেত্রে দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিকেট ইতিহাসে তাকে জন্টি রোডসের পরের আসনে রাখা হয়েছে। ২০০৫ সালের শেষদিকে ক্রিকইনফোর এক প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে যে, তিনি ১৯৯৯ সালের ক্রিকেট বিশ্বকাপের পর থেকে একদিনের আন্তর্জাতিকে সর্বোচ্চ রান আউট করার ক্ষেত্রে যে-কোন ফিল্ডারের চেয়ে অষ্টম ও রান আউটে সফলতার দিক থেকে দশম সর্বোচ্চ ফিল্ডারের মর্যাদা লাভকারী ক্রিকেটার। গিবস বলেছেন যে, খেলা শুরুর পূর্বে তিনি খুব কমসংখ্যক সময়েই নেট প্র্যাকটিস করেছেন।



Copyright © 2019 sportsonly.net